আপনার ই-মেইল আইডি কি সুরক্ষিত? এডমিনদের চরিত্রের এই অবস্থা কেন?

বিসমিল্লাহীর রহমানির রাহীম

পরীক্ষার কারণে বহুদিন কোন পোষ্ট করতে পারি নাই। গতকাল পরীক্ষা শেষ হলো; তাই আজ নিজেকে খুবই ফ্রি ফ্রি মনে হচ্ছে 🙂 এজন্যই অবসরের ফাঁকে পোষ্ট করতে বসে পড়লাম 🙂

যাক আসল কথায় আসি…… আজ আমি আমার নিজের বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে ইমেইল আইডির সুরক্ষা সংক্রান্ত কিছু তথ্য শেয়ার করবো। ইনশাআল্লাহ আশা করছি নতুনদের জন্য অবশ্যই এই পোষ্টটি উপকারী হবে।

তো শুরু করা যাক…….

ঘটনা: কিছু দিন পূর্বে আমার জিমেইল আইডিতে একটি মেইল আসে। মেইলটি ছিল এলিফ্যান্ট রোডের একটি কম্পিউটার সার্ভিসিং দোকান থেকে পাঠানো। ঐ মেইলটি ছিল মূলত একটি বিজ্ঞাপন! যাতে বলা ছিল যে, তারা বিভিন্ন রকমের কম্পিউটার সার্ভিসিং ও নতুন পুরাতন পিসি ক্রয়-বিক্রয় করে। এছাড়াও তাদের আরোও অনেক ধরনের সার্ভিসের তালিকা দেয়া ছিল।

তো আমি ভাবলাম….. তারা কিভাবে আমার মেইল আইডিটি পেল? আর এ প্রশ্নের উত্তর পেতে আমি বিজ্ঞাপনে দেয়া ফোন নম্বরটিতে ফোন করলাম আর জিজ্ঞাসা করলাম যে তারা কিভাবে আমার মেইল আইডিটি পেল।

তারা উত্তর দিলো… “ঐ মেইল আইডিটি দিয়ে আমি বিভিন্ন ব্লগ/সাইটে ইউজার একাউন্ট খুলেছিলাম, পরে ঐ সাইটের এডমিনরা ইমেইল আইডিটি কম্পিউটার সার্ভিসিং দোকানে টাকার বিনিময় বিক্রি করে দিয়েছে!”

এবার ভাবুনতো আমার ঐ মেইল আইডিটিতে হয়তা ব্যাংক একাউন্টও থাকতে পারে, এছাড়াও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজে আমি ঐ মেইল আইডিটি ব্যবহার করে থাকতে পারি। তাই আইডিটি অবশ্যই আমার একটি একান্ত গোপনীয় ও মূল্যবান বস্তু। আর বিভিন্ন ব্লগ/সাইট এডমিনরা তাদের নিবন্ধিত ইউজারদের আমানত (মেইল আইডি) টি কয়েক টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিল।

এভাবে একটি ব্লগে/সাইটে যদি 5000 নিবন্ধিত আইডি থাকে তাহলে, প্রতি আইডি 3 টাকা করে হলেও, সে 15000 টাকায় বিক্রি করে দিল! অর্থাৎ ইমেইল আইডি গুলো হয়তবা কিছু দিনের মধ্যেই স্প্যামের শিকার হয়ে যাবে।

এভাবে সাইট এডমিনরা আমাদের ইমেইল আইডি গুলোর সুরক্ষা/প্রাইভেসি নষ্ট করে দিচ্ছে। তবে সকল এডমিনদের আমি দোষারোপ করছি না। আমি দোষারোপ করিছি ঐ সকল এডমিনদের যারা সহজ-সরল ইউজারদের আমানতের খিয়ানত করে প্রতারিত করছেন।

বর্তমান যুগে ইমেইল আইডি একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ ও নিত্য প্রয়োজনীয় বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই অবশ্যই আমাদেরকে ইমেইল আইডির  ‍সুরক্ষার দিকে খেয়াল রাখতে হবে।

ইদানীং আবার কিছু কিছু মেইল আসছে লটারী সংক্রান্ত। ঐ মেইল গুলোতে বলা থাকে, আপনি লটারী পেয়েছেন, সিটিজেনশীপ পেয়েছেন প্রভূতি! আসলে এগুলো সবই ভূয়া! তাই আমাদের সকল কে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

ইমেইল আইডি থাক সুরক্ষিতঃ

1। নিজের ব্যক্তিগত একটি ইমেইল আইডি ক্রিয়েট করুন।

2। নেটে সচরাচর কোন ব্লগ/সাইটে একাউন্ট খুললে ব্যক্তিগত মেইল আইডি কখনও ইউজ করবেন না।

3। যেই মেইলটি আপনি ব্যাংক অথবা অন্য কোন গুরুত্ত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে ব্যবহার করবেন; সেটি কখনও কোন কমেন্টে-ব্লগে/সাইটে বা অন্য কোন স্থানে ব্যবহার না করাই ভালো।

4। আমি আমার ব্যক্তিগত জিমেইল আইডিটিতে দুই শ্রেণীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা দিয়ে রেখেছি। অর্থাৎ কেউ যদি আমার পাসওয়ার্ড পেয়েও যায় তারপরও ইনশাআল্লাহ সাইন ইন করতে পারবে না। কারণ তখন আপনার মেইল আইডির দুটি পাসওয়ার্ড থাকে। মূলত এটা হচ্ছে একটি মেসেজিং সিস্টেম। অর্থাৎ আপনি সাইন ইন করতে গেলেই আপনার ফোনে একটি মেসেজ আসবে; যাতে ছয় সংখ্যার একটি কোড দেয়া থাকে। আর ঐ কোডটি হলো আপনার দ্বিতীয় পাসওয়ার্ড। এভাবে যতবার আপনি সাইনইন করার জন্য মেইল আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন ততবারই আপনাকে মেসেজে একটি ছয় সংখ্যার পাসওয়ার্ড দেয়া হবে।

5। নেটে সচরাচর প্রায়ই আমাদের মেইল আইডির প্রয়োজন পড়ে। তাই রাফ ইউজের জন্য কয়েকটি মেইল আইডি ক্রিয়েট করে রাখুন এবং ব্লগ/সাইট/কমেন্টে ঐ গুলো ইউজ করুন।

6। অপরিচিত জায়গা থেকে মেইল আসলে; ওপেন না করাই ভালো। কারণ এতে স্প্যামিং এ সম্ভবনা থাকে।

7। অনেক সময় মেইল আসে লটারী বা সিটেজেনশীপ সংক্রান্ত! এগুলো ভূলেও বিশ্বাস করবেন না।

ভাই আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে যতটুকু পেরেছি, শেয়ার করেছি। আপনি যদি মেইল সংক্রান্ত আরোও কিছু নিরাপত্তাজনিত টিপস জানেন তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে শেয়ার করবেন।

আজ এই পর্যন্তই আল্লাহ হাফেজ।

মোহাম্মদ নূরুল ইসলাম রনি

#আমার সম্পর্কে তেমন কিছু বলার নেই। তবে নিজেকে মহান আল্লাহ-তায়ালার একজন নগণ্য বান্দা হিসেবে পরিচয় দিতেই ভালোবাসি। আমার একটি অন্যতম শখ হচ্ছে, বেশী থেকে বেশী প্রযুক্তিকে জানতে ও জানাতে। এর প্রয়াসেই বিভিন্ন ব্লগে পোষ্ট করে থাকি। একবার আমার ব্লগ সাবাইকে দাওয়াত- www.pchelpcarebd.blogspot.com # দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত জ্ঞান অন্বেষণ করো।----- আলহাদীস। প্রযুক্তির সূরে মেতে উঠুক, বাংলার প্রতিটি মানুষ.......

More Posts - Website

Follow Me:
Facebook

Leave a Reply