HSC তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, অধ্যায়- HTML পর্ব-1

বিসমিল্লাহীর রহমানির রাহীম

আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন সবাই?

HSC তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

[পোস্ট শুরু করার আগেই বলে নিই: যদি পোস্টে কোন ভূল-ত্রূটি পরিলক্ষিত হয়। তাহলে কমেন্ট করে বলে দিবেন। ইনশআল্লাহ ঠিক করে দেওয়ার চেষ্টা করব।]

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বর্তমানে একটি আবশ্যিক বিষয়। শুধুমাত্র এইচএসসি তেই নয়। আপনি যদি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনের চার বছর মেয়াদী অনার্স করেন (যেকোন সাবজেক্টে) তাহলেও কিন্তু আপনাকে ২য় বর্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়টি পড়তে হবে।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন যে, এই বিষয়টি বর্তমানে কি পরিমাণ গুরুত্বপূর্ণ! তবে এইচএসসিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়টির ছয়টি অধ্যায়ের মধ্যে একটি অধ্যায় হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কিত। তবে বলতে পারেন মূলত এই ওয়েব ডিজাইন অধ্যায়টি  সম্পূর্ণই HTML (এইচটিএমএল)   ভিত্তিক।

তাই এখন HSC তে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির HTML (এইচটিএমএল) বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অবশ্যই একজন শিক্ষার্থীকে ওয়েবডিজাইন বা HTML (এইচটিএমএল) এর বেসিক বিষয় গুলো হাতে কলমে জানতে হবে।

আমার কালেকশনে থাকা ওয়েবডিজাইন বা HTML (এইচটিএমএল) সংক্রান্ত কিছু লেকচার শীট আছে। যা আপনাদের সাথে শেয়ার করছি….

HSC তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি  HTML (এইচটিএমএল) শীট

চলুন প্রথমেই জেনে নিই HTML (এইচটিএমএল) এর মৌলিক বিষয় গুলো:

HTML (এইচ টি এম এল) এর মৌলিক বিষয়সমুহ:

এইচ টি এম এল হচ্ছে প্রেজেন্টেশনের ক্ষেত্রে ওয়েব ডকুমেন্ট শিখার একটি কম্পিউটার এর ভাষা । এইচ টি এমএল কোন প্রোগ্রামিং এর ভাষা নয়, তবে প্রোগ্রামারগন ওয়েব পেইজে টেক্সট অডিও ভিডিও গ্রাফিক্স বা এনিমেশন কে সুন্দর ভাবে সাজাতে বা ফরমেট করতে এইচ টি এম এল ব্যাবহার করেন ।

 

সুবিধাঃ অধিকাংশ ব্রাঊজার সাপোর্ট করে , ব্যবহার সহজ, সিনটেক্স সহজ, তাই শেখা সহজ, উইন্ডোজ এর সাথে ডিফল্ট থাকে তাই আলাদা কিনতে হয় না ।

 

অসুবিধাঃ শুধুমাত্র স্টেটিক ওয়েব পেজ ডেভলাপ করা যায়, ডাইনামিক ওয়েব পেজ করা যায় না , সাধারন ওয়েব পেজ তৈরী করতেও অনেক কোড লিখতে হয়। নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভালো নয়। ওয়েব পেজ তৈরী করতে অনেক কোড লিখতে হয় তারপরও জটিলতা র সৃষ্টি হয়।

 

ট্যাগঃ এইচ টি এম এল এর মার্কাপ ভাষায় ব্যবহৃত ট্যাগকেই মুলত এইচ টি এম এল এর ট্যাগ বলে। ট্যাগ যে কোন নির্দেশ কেই সু নির্দিষ্ট করে দেয়। ট্যাগ গুলো হলো কি ওয়ার্ড। ট্যাগ নির্দিষ্ট কোন নির্দেশ এর সাংকেতিক চিহ্ন হিসাবে বসে । দুটি এঙ্গেল <>ব্রাকেটের মাঝে অবস্থিত এক একটি সতন্ত্র উপাদান (এলিম্যান্ট) নিয়ে এইচটিএমেল ট্যাগ গঠিত। এই ট্যাগ গুলো এইচ টি এম এল এর সিম্বল দ্বারা ওয়েব ডকুমেন্ট এর বিভিন্ন ধরনের ফরমেট এবং লিঙ্ক সম্পন্ন করে।

 

আজ এই পর্যন্তই। আজ এই পর্যন্তই। পরবর্তীতে 2য় পর্ব নিয়ে হাজির হবো। আর যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে কমেন্ট বক্সতো আছেই।

ভাই আমিওতো আপনার মতই রক্তে মাংসে গড়া একজন মানুষ। তাই আমার কি ভূল-ত্রূটি হতে পারে না?

আর আমার জন্য দোয়া করবেন। যেন ভবিষ্যতে আপনাদের জন্য আরোও ভালো কিছু নিয়ে আসতে পারি (ইনশআল্লাহ)।

*আমাদের গ্রুপে যোগ দিতে পারেন https://www.facebook.com/groups/wordpresshelpsupport

*আর আমার ব্লগে সকলের দাওয়াত- www.pchelpcarebd.blogspot.com

*আমাদের পেজে লাইক দিয়ে সবসময় আপডেট নিন- www.facebook.com/Techtunesblog

*একটি ইসলামিক পেজ ঘুরে আসতে পারেন- http://www.facebook.com/islamiZindegi

আল্লাহ হাফেজ।

HSC তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

HSC তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

HSC তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

HSC তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

মোহাম্মদ নূরুল ইসলাম রনি

#আমার সম্পর্কে তেমন কিছু বলার নেই। তবে নিজেকে মহান আল্লাহ-তায়ালার একজন নগণ্য বান্দা হিসেবে পরিচয় দিতেই ভালোবাসি। আমার একটি অন্যতম শখ হচ্ছে, বেশী থেকে বেশী প্রযুক্তিকে জানতে ও জানাতে। এর প্রয়াসেই বিভিন্ন ব্লগে পোষ্ট করে থাকি। একবার আমার ব্লগ সাবাইকে দাওয়াত- www.pchelpcarebd.blogspot.com # দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত জ্ঞান অন্বেষণ করো।----- আলহাদীস। প্রযুক্তির সূরে মেতে উঠুক, বাংলার প্রতিটি মানুষ.......

More Posts - Website

Follow Me:
Facebook

Leave a Reply